২০২৫ সালের পর ভারতের অংশ হবে পাকিস্তান: আরএসএস নেতা

ভারতের হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস)-র একজন শীর্ষ নেতা বলেছেন, ২০২৫ সালের পর ভারতের অংশ হবে পাকিস্তান। আরএসএস-র ওই নেতা ইন্দ্রেশ কুমার শনিবার কাশ্মীর ইস্যুতে এক আলোচনা সভায় এই মন্তব্য করেন। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

সংঙ্ঘের জাতীয় নির্বাহী কমিটি সদস্য ইন্দ্রেশ বলেন, আপনারা লিখে রাখুন আজকে থেকে পাঁচ-সাত বছর পর করাচি, লাহোর, রাওয়ালাপিন্ডি ও শিয়ালকোটে ঘরবাড়ি কিনতে বা ব্যবসা করতে পারবেন।

আরএসএস-র এই নেতা আরও বলেন, ১৯৪৭ সালের আগে পাকিস্তান ছিল না। ১৯৪৫ সালের আগে মানুষজন এটাকে (পাকিস্তান) হিন্দুস্তানের অংশ বলতো। ২০২৫ সালের পর এটি আবারও হিন্দুস্তানের অংশ হবে।

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে মিল রেখে ‘অখণ্ড ভারত’ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে দিল্লি সরকার কাজ করছে বলেও মন্তব্য করেছেন ইন্দ্রেশ।

সংঙ্ঘের নেতা ইন্দ্রেশ বলেন, এই প্রথমবারের মতো কাশ্মীর ইস্যুতে কঠোর অবস্থান নিয়ে ভারত সরকার। এর কারণ হচ্ছে, সেনাবাহিনীর রাজনৈতিক শক্তির ইচ্ছা অনুযায়ী কাজ করে এবং রাজনৈতিক ইচ্ছাশক্তির পরিবর্তন হয়েছে। তাই আমরা লাহোরে থাকার স্বপ্ন দেখছি এবং মানসরোবর লেকে যাওয়ার জন্য আর চীনের অনুমতির প্রয়োজন হবে না। আর ইউরোপীয় ইউনিয়নের আদলে অখণ্ড ভারত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে দিল্লি সরকার।

পুলওয়ামার হামলার ঘটনায় বিভিন্ন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে নাসিরুদ্দিন শাহ, হামিদ আনসারী ও নভোজিৎ সিং সিঁধুকে বিশ্বাসঘাতক উল্লেখ করেছেন তিনি। তিনি বলেন, তারা সেনাবাহিনীর (পাকিস্তানের বালাকোটে হামলার কারণে) প্রশংসা করলেও, তারা প্রমাণ চেয়েছে। মোদির বিরোধিতা করতে গিয়ে তারা পাকিস্তানের প্রশংসা শুরু করে দেয়। জেএনইউ পড়াশোনা বা মহারাষ্ট্রে থাকলেও এ ধরনের বিশ্বাসঘাতকদের জন্য একটি আইন দরকার। তাহলে আর কোনও নাসিরুদ্দিন, হামিদ আনসারী বা সিঁধু থাকবে না।

২০২৫ সালের পর ভারতের অংশ হবে পাকিস্তান: আরএসএস নেতা

Leave a Reply

Your email address will not be published.