‘রাজউক চাইলেও অবৈধ ভবন ভাঙা অসম্ভব’

'রাজউক চাইলেও অবৈধ ভবন ভাঙা অসম্ভব'
সাধারণ নাগরিকরা বিশ্বাসও করে না অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ভবন ভেঙে রাজউক নতুন শহর উপহার দেবে মন্তব্য করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, রাজধানীতে অবৈধভাবে গড়ে উঠা সাড়ে ৫ হাজার ভবন আজ রাজউক চাইলেই ভাঙা অসম্ভব। তবে রাজউক একটা কাজ করতেই পারে, প্রতীকী অর্থে প্রমাণ করে দিক একজন সর্বোচ্চ প্রভাবশালীর দ্বারা অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ভবনটি ভেঙে ফেলুক। তাহলেই বুঝবো রাজউকের সদিচ্ছা, আন্তরিকতা রয়েছে।

রবিবার রাজধানীর কলাবাগানের ইয়াকুব সাউথ সেন্টারে স্টেট ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ‘অগ্নিকাণ্ড : কারণ ও করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মেয়র বলেন, ‘ভবনগুলো যখন নির্মাণ হচ্ছিল তখনই বাধা দেয়া ও আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা উচিত ছিল। আজকে এই ভবনগুলো যদি ভাঙতে চাই তা তো অসম্ভব।’স্টেট ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান অনুষদের ডিন স্থপতি অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেসের সভাপতিত্বে ও অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌসের সঞ্চালনায় গোলটেবিল আলোচনায় আলোচক ছিলেন- ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স পরিচালক (অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেইন্যান্স) মেজর শাকিল নেওয়াজ, বুয়েটের স্থাপত্য বিভাগের প্রধান ড. নাসরিন হোসাইন, বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মফিজুর রহমান, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. ইয়াসির আরাফাত খান, বাংলাদেশ অ্যাসিড মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ পলাশ, স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি ড. কামরুজ্জামান মজুমদার, এফবিসিসিআই সাবেক সভাপতি ও দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন, ঢাবির রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. আহসান হাবিব সানা, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.